বিশ্লেষণের ব্যবচ্ছেদ

বিশ্লেষণের ব্যবচ্ছেদ
------------------------------

আমরা সবাই কমবেশি বিশ্লেষণ করি। ছোট বেলায় বাসায় মাইর খাওয়া থেকে শুরু, কৈশোরে প্রেমের বিশ্লেষণ, কলেজ ভার্সিটিতে উঠে কে কার সাথে কেন কোথায় ঘুরছে ইত্যাদি বিশ্লেষণ করে করে আমরা হাত পাঁকাই।

তারপর আমরা হঠাৎ করেই বড় হয়ে যাওয়ার পর 'লেভেল আপ' বুঝাতে বড়সড় ইস্যু নিয়ে বিশ্লেষণ করা শুরু করি। 

যাইহোক, বিশ্লেষণের সেই বিশ্লেষণ লক্ষ্য না।

তবে বিশ্লেষণে আমরা কিঞ্চিৎ গোঁজামিল করে ফেলি প্লট সিলেকশনে। প্লট সিলেকশনটা জরুরী। প্লট নিয়ে বলার আগে, বিশ্লেষণের ব্যবচ্ছেদ জরুরী। 

বিশ্লেষণ অনেক আঙ্গিকের হতে পারে। যেমন প্রধানত গুণগত ও পরিমাণ গত। কিংবা অন্য প্রাসপেক্টিভ থেকে নানান রকমের হতে পারে, যেমন একটা ইস্যুর ধর্মীয় বিশ্লেষণ, রাজনৈতিক, সামাজিক ইত্যাদি। 

আমরা একটা ঘটনা ঘটলে সেটা কিভাবে বিশ্লেষণ করবো তার প্রাচুর্যতা নির্ভর করে আমাদের মানসিক অবস্থার উপর। জীবনধারণের দর্শন, অর্জিত জ্ঞান, সমসাময়িক পরিবেশ, অতীত অভিজ্ঞতা, ভবিষ্যত পরিকল্পনা ইত্যাদি বিস্তার প্রভাবিত করে।

এখানে মুশকিলটা হলো এই যে, আপনি ধুম করেই কারো হাইপোথিসিস বাদ দিয়ে দিতে পারবেন না। কারণ ডায়ালেক্টিক্যাল থিউরি মতে আপনাকে বেটার লজিক দিতে হবে। তবে যুক্তিবিদ্যার সবচেয়ে বড় দূর্বলতা হলো, যুক্তিতে জিতার জন্যে সবচেয়ে সঠিক যুক্তি দিতে হবে এমন না, অপরজনের চেয়ে ভাল দিলেই আপনি জয়ী হয়ে যাবেন।

তবে এখানে ডায়ালেক্টিক্যাল থিউরির মজার ব্যাপার হচ্ছে, একক ক্ষেত্রে এটা কাজ সুষ্ঠুভাবে না করলেও সামষ্টিক ভাবে এটা অসাধারণ কাজ করে। 

তো, এখানে যা হয় অধিকাংশ ক্ষেত্রে,
তারা যুক্তির ব্যাপারে যথেষ্ট সচেতনতা দেখালেও প্লট বাছাই করতে পারে না। ধরুন কেউ গুণগত প্লটে বিশ্লেষণ করছে , আপনি সেখানে এসে ধর্মীয় প্লটে আপনার যুক্তিতর্ক  শুরু করলেন, তাহলে কিন্তু আপনাদের গ্রাউন্ড সেইম থাকলো না!

দুজন ভিন্ন প্লট থেকে বিশ্লেষণ করে ফেনা ফেনা করে ফেললেও কাজ হবেনা।

এখানেই মজা। আপনি কাউলে বলে দিলেন, বল যেটাই হোক ঘুরায়া মারবি! সে ছক্কাও হাঁকিয়ে ফেলতে পারে, কিন্তু ম্যাচ জিতাতে পারবেনা! প্লট বুঝার জন্যে অভিজ্ঞতা,জ্ঞান দুটাই লাগে। এটা বয়সের সাথে সাথে আসে কম, এটার জন্যে সাধনা করতে হয়।

0 জনের ভালো লেগেছে